[PDF] লাভ ক্যান্ডি PDF Free download

love candy pdf

জাফর বিপি লাভ ক্যান্ডি PDF Free download – Love Candy Pdf Books download

লাভ ক্যান্ডি জাফর বিপি বই রিভিউ

লেখক জাফর বিপি এর লাভ ক্যান্ডি বইয়ের বিবরণঃ

বই:লাভ ক্যান্ডি
লেখক(Author)জাফর বিপি
প্রকাশনী(Publisher) ও  ধরণ(type)নিয়ন পাবলিকেশন
ফাইল ফরম্যাট (file format):epub bangla, MOBI, kindle bangla , Bangla Pdf free Download(ফ্রি পিডিএফ ডাউনলোড)
সর্বশেষ প্রকাশ (Last Published Date)5th Edition Print, 2021 সাল
মোট পৃষ্ঠা (Pages)176 পেজ
অঞ্চল ও ভাষা (Content Region & Language)বাংলাদেশ
ফাইল সাইজ: 33 মেগাবাইট

 

লাভ ক্যান্ডি জাফর বিপি Pdf Book Review(বই রিভিউ ও পর্যালোচনা):

স্বল্প মূল্য দিয়ে কিনে আনা রত্ন লেখক জাফর বিপি এর লাভ ক্যান্ডি বইয়ের রিভিউ ও পর্যালোচনা করতে বেশ ভালই লাগছে, যেখানে বইটির প্রকাশনীর প্রিন্ট কোয়ালিটি ও প্রচ্ছদ ভালই ছিল।

পিংক কালার বরাবরই খুব পছন্দের কালার।
আর অনেকদিন থেকে ভাবছি লাভ ক্যান্ডি বইটা পড়বো.

লাভ ক্যান্ডি পিডিএফ ডাউনলোড by জাফর বিপি লিংক(link or homepage): 

Download

 


আরও পড়ুনঃ
বই : জ্বলছে ধ্রুবতারা
যেকোনো গল্প মানুষের মনকে স্বল্প সময়ে উজ্জিবীত করার এক অন্যতম নিয়ামক। সেই সাথে ইতিহাস, ঐতিহ্য ও সংস্কৃতির এক অবিচ্ছেদ্য অংশ।
জীবনের সাথে যা কিছু মিলে যায় অথবা লেখক মননের বিচিত্র ভাবনার মিশেলে রচিত হয় একেকটা সাহিত্য কর্ম, একেকটা গল্পের প্লট। মানুষের জীবনের গল্পগুলোও অনেক সময় আশ্চর্য রকমের হয়ে থাকে। স্বল্প দিনের জটিলতায় পরিপূরর্ণ এক জীবনের যেমন থাকে পাওয়া না পাওয়ার সমীকরন তেমনি অন্যদিকে থাকে অনেক অজানা বিপদসঙ্কুল পরিস্থিতির কথা।
এমনই এক জীবন ঘনিষ্ঠ সাহিত্য কর্মের নাম “জ্বলছে ধ্রুবতারা”। বইটি লিখেছেন বর্তমান সময়ের একজন উদীয়মান লেখিকা আয়েশা নিশু।
➤ সার-সংক্ষেপঃ-
বইটি সাজানো হয়েছে আলাদা শিরোনামে ০৬টি গল্পের মাধ্যমে। প্রতিটি গল্পের প্লট, চরিত্র আলাদা। যার প্রতিটি গল্প নিয়ে লিখতে গেলে রিভিউ অনেক বড় হয়ে যাবে। তাই এখানে আমি সবচেয়ে ভালোলাগা কয়েকটি গল্প সম্পর্কে আলোচনা করবো ইনশাআল্লাহ-
 জ্বলছে ধ্রুবতারা:
এটি বইয়ের প্রথম গল্প। গল্পের প্রধান চরিত্র বৃষ্টি ও ধ্রুব। এই গল্পে প্রস্ফুটিত হয়েছে বৃষ্টি ও ধ্রুব এর মধ্যেকার বন্ধুত্বের সম্পর্ক নিয়ে বিশ্বাস, অনূভুতি, আবেগ ও ভালোবাসার এক অপূর্ব মিশেল। সেই সাথে বৃষ্টির বন্ধু ধ্রুব এর মৃত্যু নিয়ে এক বেদনাদায়ক উপাখ্যান।
◼
মেঘলার মেঘ:-
মানুষ কাছে থাকলেই যে শুধু ভালোবাসা হয় না। দূরে গেলেও ভালোবাসা যায়। এটাই এটাই লেখিকা ব্যক্ত করতে চেয়েছেন মেঘলা, মেঘ ও নিউজ এর মাধ্যমে।
◼ কালো শাড়ির মেয়েটি:-
গল্পটি রুমেল ও ইতি প্রেমকাহিনীকে ঘিরে আবর্তিত হয়েছে। বিদেশ থেকে ফিরে আসা রুমেল ও এয়ারহোস্টেজে জব করা ইতির জীবনেও প্রেম এসেছিল। প্লেনেই চোখে চোখে কথোপকথন, প্রেম নিবেদন, সর্বোপরি নিজেদের একে অপরের তরে সমর্পণ সবই হয়েছিলো। কিন্তু পথিমধ্যে দূর্ঘটনার মধ্যে পড়ে সেই প্লেনটি। রুমেল ও ইতি দুজনেই একসাথে প্যারাসুট নিয়ে প্লেন থেকে ঝাপ দেয়। ঝাপ দেয়ার পরই তারা দেখতে পায় ইতি যে প্যারাসুট নিয়ে ঝাপ দিয়েছে তার কয়েক জায়গায় ছেড়া। শেষ পর্যন্ত এই দুটো মানুষ কি বিপদময় পরিস্থিতি থেকে মুক্ত হতে পারবে? নাকি মধ্য আকাশেই পিষ্ট হবে দুটি নিষ্পাপ মনের প্রেম? এটা জানতে হলে পুরো গল্পটি যে পড়তেই হবে।
অসুন্দরী ললনা:-
বইয়ের শেষ গল্প এটি। এই গল্প মেহরাব ও মাধুবীর। পরিস্থিতির নির্মমতায় পড়ে যাদের প্রেমকাহিনী সফলতা পায়নি। যে ভেতরের সৌন্দর্যকে দাম দেয়ার চাইতে বাইরের সৌন্দর্যকে বেশি দাম দেয় এমন তাকে বিয়ে না করাই ভালো এটাই ফুটিয়ে তোলা হয়েছে এই গল্পের মাধ্যমে।
এছাড়া বইতে আরো রয়েছে “ঝরে পড়া বকুল মানব মানবী” ও “ভালোবাসার প্রথম এবং শেষ লগ্ন” শিরোনামের দুটি অসাধারন গল্প।
বইটি কেন পড়বেনঃ-
বইটি পনি পড়বেন কেন তার অন্যতম কারণ হলো এখানে নানা স্বাদের, নানা ধাঁচের বিভিন্ন গল্প তুলে ধরা হয়েছে৷ একেকটা গল্প যেন প্রেমময় জীবনের একেকটা দিককে প্রতিনিধিত্ব করে৷ আমাদের চারপাশে ঘটমান নানা ঘটনার বর্ণনা বেশ সুনিপুণতার সঙ্গে গল্পকারের কলমের আঁচড়ে উঠে এসেছে বইয়ের পাতায়। সবমিলিয়ে, এককটা গল্প যেন হয়ে উঠেছে একেকজন মানুষের জীবন আখ্যান।
ব্যক্তিগত অনূভুতিঃ-
বইয়ের কভার ও বাইন্ডিং বেশ ভালো লেগেছে। ভিতরের পৃষ্ঠাসজ্জা ও পেজ কোয়ালিটিও উন্নত মানের। দক্ষ লেখিকা আয়েশা নিশুর কলমের ছোয়ায় বইটি হয়েছে সহজ, সাবলীল ও প্রাণবন্ত। ভাষাশৈলী ও উপযুক্ত শব্দচয়ন যেন বইটিকে নিয়ে গেছে এক অনন্য উচ্চতায়। গল্প বেশ সংক্ষিপ্ত পরিসরের মধ্যেই শেষ করা হয়েছে। যার কারনে গল্পগুলো পড়তে গিয়ে কখনো ক্লান্তি আসে না।
আমি বলবো না, যে সবগুলো গল্প আমার মন ছুঁয়ে গেছে। তবে কিছু কিছু গল্প খুব শান্তির সঞ্চারক। প্রত্যেকটি গল্পই আলাদা বৈশিষ্ট্য ও ভিন্ন মাত্রার স্বাদে ভরপুর। অধিকাংশ গল্পে লেখিকা শেষ টুইস্টের জন্য অপেক্ষায় রাখেন নি। বরং গল্পটি পড়ে আমরা বাস্তব জীবনে কি শিক্ষা পাবো সে সম্পর্কে আলোচনার দিকে বেশি জোর দিয়েছেন।
বইটি আপনাকে গভীরভাবে প্রেমময় জীবনকে উপলদ্ধি করতে অনুপ্রেরণা যোগাবে। কিছু কিছু বিষয় নতুনভাবে জানতে পারবেন। আপনার ভূল ত্রুটি গুলো ধরিয়ে দিয়ে অন্তরে এনে দেবে অনাবিল প্রশান্তি।
সব মিলিয়ে বইটি খুবই ভালো এবং উপকারী। তাই বাংলাভাষী সকলের প্রতি অনুরোধ “জ্বলছে ধ্রুবতারা” বইটি একবার হলেও পড়ুন সেই সাথে নিজের প্রিয় মানুষটিকেও পড়তে দিন। আর দেখুন বর্তমান সময়ের তরুন লেখক-লেখিকাগণও কেমন সুন্দর করে গভীর জীবনবোধ সম্পন্ন লেখা লিখতে পারেন।

 

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *